বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা অন্য দেশের থেকে কম বেতন পান,এর সমাধান চান ক্রিকেটাররা

 

বর্তমানে ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরির ক্রিকেটাররা মাসে বেতন পান আড়াই লাখ টাকা।  ‘এ’ শ্রেনীর দুই লাখ , ‘বি’ শ্রেনীর দেড় লাখ, ‘সি’ শ্রেনীর এক লাখ ও ‘ডি’ শ্রেনীর ক্রিকেটাররা মাসে ৭৫ হাজার টাকা করে বেতন পাচ্ছেন।



যেটা শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটারদের চেয়ে অনেক কম।  এমনকি জিম্বাবুই ও আইরিশ ক্রিকেটারদের চেয়ে ঢের কম বেতন পান বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।  অথচ শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুযে, আয়ারল্যান্ড এবং এমনকি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ে অনেক ধনী বাংলাদেশের


বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে এরকম আগে তেমনটা না থাকলেও বর্তমানে অনেকটাই সংবেদনশীল ভূমিকা পালন করেন এদেশের মানুষ। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররাও বেশ গুরুত্বের সাথে দেখে এই ক্রিকেটকে।


তবে কিছুদিন আগে ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেতন বাড়ার পর থেকে বাংলাদেশের টাইগাররাও বেতন নিয়ে আক্রোশ দেখান।  নিজেদের বেতন বাড়ানো নিয়ে সরব হন মুশফিকরা।  বিসিবিও এ ব্যাপারে ইতিবাচক।



টাইগারদের বেতন বাড়ানো নিয়ে ইতিমধ্যে আলোচনা সেরে ফেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আজ(শনিবার)বসছে মিটিং। এ মিটিংয়েই নতুন বেতন কাঠামো পাশ করবে বিসিবি। এতে আজই সুখবর পাচ্ছেন, মান-সন্মান আরও বাড়ছে মাশরাফিদের।
ক্রিকেট বোর্ড।  বাৎসরিক আয়ও বিসিবির অনেক বেশি এসব দেশের বোর্ডের চেয়ে।



মাসে আড়াই লাখ হলে বছরে ৩০ লাখ টাকা বেতন পান বাংলাদেশের ‘এ’ প্লাস শ্রেনীর ক্রিকেটাররা।  অতচ জিম্বাবুয়ে টপ ক্লাস ক্রিকেটারদের বেতন সেখানে বছরে ৫২ লাখ টাকার উপরে।  বাংলাদেশে সবচেয়ে কম বেতন মাসে ৭৫ হাজার টাকা।  অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটারদের সবচেয়ে কম বেতন সেখানে পৌনে ২ লাখ টাকা।

loading…



আয়ার‌্যান্ড টেস্ট দল নয়।  সেখানে ক্রিকেটের অবকাঠামোও ততটা শক্তিশালী নয়।  অথচ আইরিশ টপ ক্লাস ক্রিকেটাররা মাসে পাঁচ লাখ টাকা বেতন পেয়ে থাকেন।  মানে বছরে ৬০ লাখ টাকা।



বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে এরকম আগে তেমনটা না থাকলেও বর্তমানে অনেকটাই সংবেদনশীল ভূমিকা পালন করেন এদেশের মানুষ।  বাংলাদেশের ক্রিকেটাররাও বেশ গুরুত্বের সাথে দেখে এই ক্রিকেটকে।  তবে কিছুদিন আগে ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেতন বাড়ার পর থেকে বাংলাদেশের টাইগাররাও বেতন নিয়ে আক্রোশ দেখান।  নিজেদের বেতন বাড়ানো নিয়ে সরব হন মুশফিকরা।  বিসিবিও এ ব্যাপারে ইতিবাচক।  টাইগারদের বেতন বাড়ানো নিয়ে ইতিমধ্যে আলোচনা সেরে ফেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।  আজ(শনিবার)বসছে মিটিং।  এ মিটিংয়েই নতুন বেতন কাঠামো পাশ করবে বিসিবি।



বর্তমানে ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরির ক্রিকেটাররা মাসে বেতন পান আড়াই লাখ টাকা।  ‘এ’ শ্রেনীর দুই লাখ , ‘বি’ শ্রেনীর দেড় লাখ, ‘সি’ শ্রেনীর এক লাখ ও ‘ডি’ শ্রেনীর ক্রিকেটাররা মাসে ৭৫ হাজার টাকা করে বেতন পাচ্ছেন।


যেটা শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটারদের চেয়ে অনেক কম।  এমনকি জিম্বাবুই ও আইরিশ ক্রিকেটারদের চেয়ে ঢের কম বেতন পান বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।  অথচ শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুযে, আয়ারল্যান্ড এবং এমনকি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ে অনেক ধনী বাংলাদেশের ক্রিকেট বোর্ড।  বাৎসরিক আয়ও বিসিবির অনেক বেশি এসব দেশের বোর্ডের চেয়ে।

মাসে আড়াই লাখ হলে বছরে ৩০ লাখ টাকা বেতন পান বাংলাদেশের ‘এ’ প্লাস শ্রেনীর ক্রিকেটাররা।  অতচ জিম্বাবুয়ে টপ ক্লাস ক্রিকেটারদের বেতন সেখানে বছরে ৫২ লাখ টাকার উপরে।  বাংলাদেশে সবচেয়ে কম বেতন মাসে ৭৫ হাজার টাকা।  অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটারদের সবচেয়ে কম বেতন সেখানে পৌনে ২ লাখ টাকা।

আয়ার‌্যান্ড টেস্ট দল নয়।  সেখানে ক্রিকেটের অবকাঠামোও ততটা শক্তিশালী নয়।  অথচ আইরিশ টপ ক্লাস ক্রিকেটাররা মাসে পাঁচ লাখ টাকা বেতন পেয়ে থাকেন।  মানে বছরে ৬০ লাখ টাকা।
আরও জানতে VIDEO টি দেখুন.চানেলটি SUBSCRIBE করতে ভুলবেননা PLEASE::

loading...