ইতালীর সিজনাল ভিসা-এই বছর কি তবে বাংলাদেশিদের জন্ন সুখবর?




সব কিছুর আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ফেইসবুক পেইজে!!
অনুগ্রহ পুর্বক নিচের লাইক বাটনে ক্লিক করুন।

কৃষিশ্রমিকের জন্য ইতালী সরকার সম্প্রতি Decreto Flussi 2016 বা সিজনাল ভিসায় বিদেশী শ্রমিক আনার বিষয়ে পরিপত্র জারি করেছিল​। পরিপত্রে দক্ষিণ এশিয়ার ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাসহ ২৯ টি দেশের কর্মী নেয়ার বিষয়টি উল্লেখ থাকলেও বরাবরের মতো বাংলাদেশকে কালোতালিকায় রাখা হয়েছিল​।


এবার ও সিজনাল ভিসায় কোন বাংলাদেশী ইতালীতে আসার জন্য আবেদন করতে পারবে কি না, তা সম্পর্কে নতুন প্রগ্গাপন জারি হবে বেশ কিসু দিনের মদ্ধে|



গত​বছর সর্বমোট ১৩০০০ কোটা কৃষি ভিসার জন্য বরাদ্দ করা হয়েছিল​। আলবেনিয়া, আলজেরিয়া, বসনিয়া-হার্জেগোভিনা, দক্ষিণ কোরিয়া, আইভরি কোস্ট, মিশর, ইথিওপিয়া, ম্যাসাডোনিয়া, ফিলিপাইন, গাম্বিয়া, ঘানা, জাপান, ভারত, কসোভো, মরক্কো, মরিশাস, মলদোভা, মন্টিনিগ্রো, নাইজার, নাইজেরিয়া সাবেক যুগোস্লাভ প্রজাতন্ত্র,পাকিস্তান, সেনেগাল, সার্বিয়া, শ্রীলঙ্কা, সুদান, ইউক্রেন এবং তিউনিশিয়ার নাগরিকরা কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

loading…






উল্লেখ্য, ইতালীতে কৃষিকাজের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে স্বল্প সময়ের জন্য কৃষি শ্রমিক আনা হয়। কৃষি খামারের মালিকের চাহিদা অনুযায়ী একজন শ্রমিক কমপক্ষে ২০ দিন থেকে ৯ মাস পর্যন্ত এ ভিসার আওতায় ইতালীতে আসতে পারবেন। ভিসার মেয়াদ শেষ হলে তাকে নিজদেশে ফেরত যেতে হবে। মালিক চাইলে একজন শ্রমিককে সর্বোচ্চ তিনবছর পর্যন্ত এ ভিসার আওতায় ইতালীতে আনতে পারবেন।


একজন কৃষি খামারের মালিক শ্রমিকের চাহিদাপত্র সরকারী অবিবাসন দপ্তরে জমা দেয়ার সর্বোচ্চ ২০ দিনের মধ্যে অনুমোদন পেয়ে থাকেন।
ইতালীতে শ্রমিক প্রবেশের পর আট দিনের মধ্যে বাসস্থানের প্রমাণপত্রসহ বৈধভাবে বসবাসের চুক্তি করতে হয় অভিববাসন দপ্তরের সঙ্গে।


সব কিছুর আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ফেইসবুক পেইজে ।।
আরও জানতে VIDEO টি দেখুন.চানেলটি SUBSCRIBE করতে ভুলবেননা PLEASE::

loading...