হো চি মিন সরণির হোটেলে আগুন ! মৃত ২

কলকাতা শহরে ফিরে এল আমরি কাণ্ডের স্মৃতি ৷ এবার আগুন লাগল হো চি মিন সরণির গোল্ডেন পার্ক হোটেলে ৷  ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দু’জনের ৷ মৃত দুই ব্যক্তির নাম অনুপকুমার আগরওয়াল এবং যুগলকিশোর গুপ্তা ৷ দু’জনেই ওড়িশার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে পুলিশ ৷

বুধবার গভীর রাতে আগুন লাগে হোটেলে ৷ ভোর ৩টে নাগাদ আগুন লাগে বলে স্থানীয় সূত্রে খবর ৷ দমবন্ধ হয়েই দু’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ ৷ দু’জনকে এসএসকেএম-এ আনার পরেই মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা ৷

আমরি অগ্নিকাণ্ডের ভয়াবহ স্মৃতিই উস্কে দিল এদিনের এই ঘটনা ৷  আতঙ্কে নীচে লাফ দিলেন কেউ। কেউ আবার নামলেন পাইপ বেয়ে। ভোর ৩টে নাগাদ হোটেলের রান্নাঘরে আগুন লাগে। সেন্ট্রালাইজড এসি হোটেলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বিষাক্ত ধোঁয়া। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে দমকলের দশটি ইঞ্জিন। কাঁচ ভেঙে আবাসিক ও কর্মীদের উদ্ধার করা হয়। চোখে-মুখে সবারই তখন আতঙ্ক। কথা বলার মত অবস্থায় ছিলেন না কেউই। সাক্ষাৎ মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে হতভম্ব সকলে। ঘুমের মধ্যে হঠাৎ আগুনে হো চিন মিন সরণির গোল্ডেন পার্ক হোটেল যেন মৃত্যুপুরী।

আগুন লাগে হোটেলের একতলার রান্নাঘরে। সেন্ট্রালাইজড এসি হোটেলের এসি ডাক্ট দিয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বিষাক্ত ধোঁয়া। ঘুমের মধ্যেই তৈরি হয় দমবন্ধ পরিস্থিতি। ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে। শুরু হয়ে যায় ছুটোছুটি। যে যেমন করে পারেন বাইরে বেরোনর চেষ্টা করেন। কেউ প্রাণ বাঁচাতে কাঁচ ভেঙে নীচে ঝাঁপ দেন। অনেকে পাইপ বেয়ে নেমে আসেন নীচে।

দমকলের দশটি ইঞ্জিন ও বিপর্যয় মোকাবিলা দলের চেষ্টায় শুরু হয় উদ্ধারকাজ। কাঁচ ভেঙে নামিয়ে আনা হয় বাকি কর্মী ও আবাসিকদের। তিনতলার ৪০৩ নম্বর রুম থেকে উদ্ধার হয় অনুপ কুমার আগরওয়ালের দেহ। পাঁচতলার স্টাফরুম থেকে উদ্ধার হয় আরেক আবাসিক যুগলকিশোর গুপ্তার দেহ।

ধোঁয়া থেকে বাঁচতে কর্মীদের ঘরে আশ্রয় নিলেও শেষরক্ষা হয়নি। আহতরা এসএসকেএম এবং উডল্যান্ডস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। খালি করে দেওয়া হয়েছে হোটেল। আবাসিকদের রাখা হয়েছে কাছাকাছি শেক্সপিয়ার সরণির হোটেল কেনিলওয়ার্থে।

loading...