ভারতীয় মিডিয়ার মাছ দিয়ে শাক ঢাকার বৃথা চেষ্টা!

এই সপ্তাহে দুই ভারতীয় সেনার মূণ্ডেচ্ছেদ করেছে পাকিস্তানি সেনারা।যদিও পাকিস্তান এই ঘটনার সাথে নিজেদের দায় অস্বীকার করেছে। কিন্তু ভারত জোর দিয়েই বলছে ভারতীয় ভুখন্ডের ৩০০ মিটারের ভিতরে এসে পাক সেনারা ভারতীয় সেনাদের মাথা কেটে হত্যা করে এবং অক্ষত অবস্থায় ফেরত যায়।এরপর পরই ভারতীয় প্রথম সারির মিডিয়ায় দাবি করা হয় ভারতীয় সেনারা ৭ পাকিস্তানি সেনাকে হত্যা করেছে।তাদের সুত্র দিয়ে বাংলাদেশের প্রায় সকল মিডিয়ায় এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

কিন্তু কোন নিরপেক্ষ মিডিয়া এবং আন্তর্জাতিক কোন মিডিয়ায় এই খবর আসেনি।এই মিথ্যা প্রচারণার আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় স্বীকৃতি না পাওয়ায় পর দিন খোদ ভারতীয় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয় ৭ পাক সেনা নিহত হওয়ার খবরটি মিথ্যা এবং সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে এমন কোন দাবি করা হয় নি।

সেনাবাহিনীর বিবৃতির পরো ভারতীয় কোন মিডীয়া মিথ্যা অপপ্রচার চালানোর জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেনি।ভারতীয় মিডীয়ার এসকল মিথ্যচার নতুন নয়।এর আগে অনেক বার তারা পাকিস্তানের হাতে মার খেয়ে নিজেদের সম্মান রক্ষার্থে পাকিস্তানি সেনা হত্যার মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে। যেটি আন্তর্জাতিক মিডিয়াতেও এসেছে।পাকিস্তানি ভুখন্ডে গিয়ে সারজিকাল স্ট্রাইক চালিয়েছে ভারত এমন দাবি করার পর প্রমাণ সরূপ আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় একটি ভিডিও তারা দিতে পারেনি। জাতিসংঘ তদন্ত কমিশন বলেছিল এটা ভুয়া।

ভারতীয় মিডীয়ার এমন মিথ্যা অপপ্রচারের স্বীকার অনেকেই হচ্ছেন সামাজিক মাধ্যম গুলিতে। এর অন্যতম কারন হছে ভারতীয় মিডীয়ার এই মিথ্যা সংবাদ গুলি বাংলাদেশের প্রথম সারির মিডিয়াতে দেয়া হচ্ছে অবিকল ভাবে যেভাবে দেয়া হয় ভারিতীয় সংবাদ মাধ্যম গুলিতে।এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের কোন বক্তব্য যাচাই না করেই হুবহ ভারতীয় মিডিয়ার বক্তব্য ছেপে দিচ্ছে আমাদের দেশের মিডিয়াগুলি।পরে পাঠক যখন জানতে পারছেন খবরটি ভুয়া তখন তিনি দেশীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতি আস্থা হারাচ্ছেন।

loading...