ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতা

সারা পৃথিবীর স্বাস্থ্য ও পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা এই উপকরণটিকে সেরা পুষ্টিসমৃদ্ধ খাদ্য হিসেবে বিবেচনা করেন। এর বহুবিধ উপকারিতার কথা জানলে অবাক হতে হয়।

তিলের গুণাগুণ সম্পর্কে আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে অনেক কিছুই বলা হয়েছে। কৃষ্ণ তিলের পাশাপাশি সাদা তিলেরও অজস্র উপকারিতা রয়েছে যা অনেকেরই অজানা। তিল থেকে নিঃসৃত তেলের ব্যবহার বহু প্রাচীন কাল থেকেই এদেশে প্রচলিত। বহু বাঙালি রান্নার রেসিপিতেই সাদা তিলবাটা একটি গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ। কিন্তু সাদা তিলের উপকারিতা যে কতদূর বিস্তৃত তা অনেকেই জানেন না। এখানে কয়েকটির সম্পর্কে আলোচনা করা হল—

১. রক্তের উচ্চচাপ নিয়ন্ত্রণে প্রভূত কার্যকরী সাদা তিল কারণ এই তিলে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম যা রক্তচাপ হ্রাস করে।

২. সাদা তিলে একাধিক প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং মিনারেলস রয়েছে। তাই প্রতিদিনের খাবারে এই উপকরণটি ব্যবহার করলে শরীরের ক্যানসার প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায়।

৩. ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণেও অত্যন্ত কার্যকরী এই তিল।

৪. সাদা তিলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস যা হাড় মজবুত করে এবং অস্টিওপোরোসিসের সম্ভাবনা কমায়।

৫. ফাইবার-যুক্ত হওয়ার ফলে হজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য-সংক্রান্ত সমস্যাও দূর করে।

৬. সাদা তিলে রয়েছে কপার বা তামা যা গাঁটের ব্যথা, ফুলে যাওয়া, মাসল পেইন বা বাতের ব্যথার উপশমে কার্যকরী।

৭. তেজস্ক্রিয়তার হাত থেকে ডিএনএ-কে রক্ষা করার অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে সাদা তিলের। তাই যাদের কেমোথেরাপি নিতে হয় তাদের খাদ্যতালিকায় এই উপাদান রাখা খুব প্রয়োজনীয়।

৮. অনেকেই জানেন না যে ওরাল হেলথের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ এই উপকরণ। মুখের ভিতরের ব্যাকটেরিয়া নিধনের জন্য মুখের ভিতর স্প্রে করা হয় সাদা তিলের তেল। এই পদ্ধতিকে বলা হয় অয়েল পুলিং।

loading...