হারপিক ও স্যাভলন খেয়ে অভিনেত্রী তমার আত্মহত্যার চেষ্টা!

ছোট পর্দা ও বড় পর্দার অভিনেত্রী শাহলা ইসলাম তমা। পারিবারিক কলহের কারণেই আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) রাতে কয়েকটি ঘুমের ট্যাবলেট, হারপিক ও স্যাভলন খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তিনি। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তবে তিনি এখন অনেকটা সুস্থ।

তমা  বলেন, ‘পারিবারিক অনেক বিষয়ের কারণে শান্তি খুঁজে পাচ্ছিলাম না। তাই সুইসাইড করার পথ বেছে নিয়েছিলাম। একাকিত্ব যখন একজন মানুষকে গ্রাস করে তখন এই পথ বেছে নেয়া ছাড়া উপায় থাকে না। বিভিন্ন দিক মেইন্টেইন করতে করতে আমি ক্লান্ত হয়ে গেছি। আমি একটু নরমাল হতে চাই কিন্তু পারছি না।’

গতকাল (১৮ এপ্রিল) তমা তার ফেসবুকে লিখেন- ‘আমাকে কারো লাগবে না। কিন্তু অন্যের বিপদে আমি ঠিকই সবকিছু ভুলে গিয়ে তার পাশে থাকি। আর আজ আমি সবার কাছে অপ্রয়োজনীয় হয়ে গেছি। ভালো থেকো তোমরা। আমার চেয়েও অনেক ধনী ঘরের মেয়েকে বিয়ে করে সুখে থেকো।’


তিনি আরো লিখেন- ‘প্রথমে দুই ধরণের ঘুমের ট্যাবলেট, তারপর হারপিক আর এখন স্যাভলন, এইবার আমাকে কে আটকায়? আমার প্রতি সবার ভালোবাসা শেষ হয়ে গেছে। বিদায়। আমার আজকের এই অবস্থার জন্য শুধু শাহজাহান সম্রাট ও তার পরিবার দায়ী।’



২০০৯ সাল থেকে ছোট পর্দায় অভিনয় করছেন তমা। এ ছাড়া তিনি চলচ্চিত্রেও কাজ করছেন। নায়ক রাজ রাজ্জাকের ‘আয়না কাহিনি’র মাধ্যমে বড় পর্দায় পা রাখেন তমা। এরপর শাহীন সুমনের ‘জটিল প্রেম’, জাকির হোসেন রাজুর ‘পোড়ামন’, রাকিবুল আলম রাকিবের ‘প্রেম করব তোমার সাথে’, কাজী হায়াতের ‘সর্বনাশা ইয়াবা’, ও অপূর্ব রানার ‘পুড়ে যায় মন’সহ মোট ছয়টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি।

loading…








আরও জানতে VIDEO টি দেখুন.চানেলটি SUBSCRIBE করতে ভুলবেননা PLEASE::

loading...