বিনা টিউশন ফিতে ইউরোপে উচ্চশিক্ষা

বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি আগ্রহী। বিশেষ করে ইউরোপের দিকেই বেশি ঝোঁক। অনেকেই আর্থিক সমস্যার কারণে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও বাস্তবায়ন করতে পারছেন না। কিন্তু ইউরোপের এমন কিছু দেশ আছে যেখানে বিনা টিউশন ফি বা নাম-মাত্র টিউশন ফি তে পড়াশোনা করা যায়। সেসব দেশগুলো নিয়েই আজকের লেখা।

নরওয়ে 

 

নরওয়েতে ব্যাচেলর, মাস্টার্স ও পিএইচডি স্তরে উচ্চশিক্ষা একদম ফ্রি। তবে ব্যাচেলর পর্যায়ে বেশিরভাগ প্রোগ্রাম স্থানীয় অর্থাৎ নরওয়েজিয়ান ভাষায় করানো হয়। এজন্য বিদেশি শিক্ষার্থীদের স্থানীয় ভাষায় দক্ষতার প্রমাণ দেখাতে হবে। তবে মাস্টার্স ও পিএইচডি স্তরের পড়াশোনা সাধারণত ইংরেজিতে হয়। স্টুডেন্ট রেসিডেন্ট পারমিট নিয়ে নরওয়েতে সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা খণ্ডকালীন কাজ করতে পারে বিদেশি শিক্ষার্থীরা।

 

জার্মানি

 

 

জার্মানিতে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রায় ১২ শতাংশ হচ্ছে বিদেশি শিক্ষার্থী। এ সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে কারণ দেশটিতে প্রায় ৯০% সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাচেলর পর্যায়ে পড়াশোনার জন্য কোনো টিউশন ফি দিতে হয় না যা স্থানীয়দের পাশাপাশি বিদেশিদের জন্যও প্রযোজ্য। তবে শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফি বাবদ ১০০-৩৫০ ইউরো দিতে হয়। তবে জার্মানিতে মাস্টার্স পর্যায়ে কিছু প্রোগ্রামে পড়াশোনার জন্য টিউশন ফি লাগে, যেমনঃ এমবিএ। জার্মানিতেও বিদেশি শিক্ষার্থীরা পড়াশোনার পাশাপাশি বছরে ১২০ পূর্ণ দিবস বা ২৪০ অর্ধ দিবস কাজ করতে পারে। তবে সম্প্রতি কিছু রাজ্যে টিউশন ফি যুক্ত করেছে।

 

অস্ট্রিয়া

 

loading...

 

ইউরোপের আরেকটি দেশ অস্ট্রিয়াতেও শিক্ষার্থীরা বিনা টিউশন ফিতে বা স্বল্প খরচে উচ্চশিক্ষা নিতে পারে। মূলত অনুন্নত দেশের শিক্ষার্থীরাই দেশটির সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিনা টিউশন ফিতে পড়ার সুযোগ পেতে পারে। তবে অন্যান্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের সরকারি প্রতিষ্ঠানে পড়ার জন্য প্রতি সেমিস্টারে প্রায় তিনশত থেকে সাড়ে আটশত ইউরোর মতো খরচ পড়বে। সেই সঙ্গে স্টুডেন্ট ইউনিয়ন মেম্বারশিপ ফি বাবদ প্রতি সেমিস্টারে প্রায় ১৯ ইউরো লাগবে।

 

ফ্রান্স

 

 

ফ্রান্সের নাম শুনে অনেকেই বিস্মিত হচ্ছেন, হ্যাঁ ফ্রান্সেও বিনা টিউশন ফিতে বা অল্প খরচে উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে। তবে ব্যাচেলর প্রোগ্রামের বেশিরভাগই ফরাসি ভাষায় পাঠদান দেওয়া হয়। তাই যারা ফরাসি ভাষা জানেন কেবল তারাই টিউশন ফি ছাড়া দেশটিতে উচ্চশিক্ষা নিতে পারেন। তবে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছু খরচ রয়েছে যা বছরে ২০০ ইউরোর চেয়ে কম। সুতরাং ফ্রান্সে পড়াশোনা করতে চাইলে ফরাসি ভাষার কোর্স করে নিতে হবে। চাইলে সেখানে গিয়েও ফি দিয়ে ভাষা কোর্স করে পড়াশোনা শুরু করা যেতে পারে। উল্লেখ্য, ব্যাচেলর ও মাস্টার্স পর্যায়ে ইংরজিতেও উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে টিউশন ফি লাগবে।

 

বেলজিয়াম

 

 

বেলজিয়ামের নাম শুনে অনেকের চোখ উপরে উঠে গিয়েছে নিশ্চয়ই, ভাবছেন স্বপ্ন দেখছিনা তো। না বন্ধুরা একদম ই না, আপনি ঠিকই শুনছেন। সাধারণ নিয়মে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য বেলজিয়ামে প্রতি বছর টিউশন ফি ৪১৭৫ ইউরো। কিন্তু যেসব দেশ  UNO’s Least Developed Countries list এর অন্তর্ভুক্ত সেসব দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি বছরে টিউশন ফি দিতে হবে মাত্র ৯০৬.১ ইউরো (২০১৭-২০১৮ সেশনে), তবে কিছু বিষয়ে/ইউনিভার্সিটিতে এর চেয়ে বেশি হয়ে থাকে। আর ভাগ্যক্রমে আমরা এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত।

বিস্তারিত এখানে  দেখুন (বিঃদ্রঃ- এই পরিমাণ যে কোন সময় পরিবর্তন হতে পারে। সাম্প্রতিক তথ্যের জন্য সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন)।

Email: [email protected]

যোগাযোগ করুন:+4917621464515 (WhatsApp/IMO/Viber)

loading...