টাঙ্গাইলে কলেজছাত্র রাজন হত্যামামলায় ১২ জনের মৃত্যুদণ্ড

টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে কলেজছাত্র রাজন মিয়া হত্যামামলায় ১২ জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে টাঙ্গাইলের স্পেশাল ও জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক ওয়াহেদুজ্জামান শিকদার এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার ভালকুরিয়া গ্রামের আবু বকর সিদ্দিক ওরফে টুনু, তার তিন ছেলে- হানু, নূরুল ইসলাম, আ: মজিদ, টুনুর নাতি সাইদুল ইসলাম এবং অন্য আসামিদের মধ্যে মজিদ মিয়া, তার ছেলে মজনু। এছাড়া বাবু প্রামাণিক, ওয়াহাব শেখ, সিরাজ প্রামাণিক, নিজাম প্রামাণিক ও তার ছেলে মুমিন।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে ৮ আসামিকে হাজির করা হয়। বাকি ৪ জন পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণী থেকে জানা যায়, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ২০১৪ সালের ১৩ এপ্রিল রাজনদের পরিবারের উপর হামলা চালায় প্রতিপক্ষরা। এ সময় রাজনকে মারাত্মকভাবে আহত করা হয়। আহত রাজনকে হাসপাতালে নেয়ার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন দায়িত্বরত চিকিৎসক। এ ঘটনার পরদিন রাজনের বাবা বাদি হয়ে ভুঞাপুর থানায় একটি হত্যামামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, রাজন টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি ডিগ্রি কলেজ থেকে সে বছর ডিগ্রি পরীক্ষা দিয়েছিল। খুনের পর প্রকাশিত ফলাফলে সে ভালোভাবে উত্তীর্ণ হয়েছিল।

রাজনের পিতা রায়ের পর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এ রায়ে তিনি খুশি। তবে রায় দ্রুত কার্যকরে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

loading...